আবু ত্বহা মুহাম্মদ আদনান নিরীহ মানুষঃ ত্ব-হার স্ত্রী

আবু ত্বহা মুহাম্মদ আদনানের স্ত্রী সাবেকুন নাহার বলেছেন, আবু ত্ব-হা মোহাম্মদ আদনান নিরীহ মানুষ, কোনো ভুল বোঝাবুঝি হয়ে থাকতে পারে। হয় তাকে আমার কাছে ফিরিয়ে দিন, নতুবা আমাকে তার পর্যন্ত পৌঁছে দিন। আজ বুধবার (১৬ জনু) দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে আবু ত্বহা মুহাম্মদ আদনানের স্ত্রী একথা বলেন। আদনানের স্ত্রী বলেছেন, আমার এই বার্তা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে পৌঁছে দিন। উনাকে (আবু ত্বহা মুহাম্মদ আদনান) যেন খুব দ্রুত আমাদের কাছে ফিরিয়ে দেয়া হয়।

আমি এই অঙ্গনের মানুষও না। আমার পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রী পর্যন্ত লেটার দেয়া হয়েছে। আমি ডিবি অফিস র‍্যাব সদর দফতরে গিয়েছি। পুলিশ হেডকোয়ার্টার্স গিয়েছি। প্রত্যেককেই আমার পক্ষ থেকে লেটার দেয়া হয়েছে। এছাড়া আমি র‍্যাব হেডকোয়ার্টার্সে র‍্যবের ডিজি স্যারের সাথে দেখা করে এসেছি। উনি আশ্বস্ত করে বলেছেন, খোঁজ পেলে জানাবে।

তিনি আমাকে প্রশ্ন করেছেন, আপনি কি মনে করেন তিনি প্রশাসনের কাস্টডিতে আছে? আমি বলেছি, না। আমি এমন মনে করে আপনাদের শরণাপন্ন হইনি। আমি তাকে খুঁজে বের করতে পারবেন সে আশা নিয়ে এসেছি। আপনারা চাইলেই অল্প সময়ের ভেতর তাকে খুঁজে বের করতে পারবেন। তবে আমার ধারণা, এটা অবশ্যই প্রাইভেট কোনো সংস্থার কাজ হতে পারে না। প্রাইভেটভাবে তাকে গুম করা হয়েছে এমন হতে পারে। প্রশাসন চাইলে তাকে অল্প সময়ের ভেতর খুঁজে বের করতে পারে।

এর কিছুক্ষণ পরে উনি নিজেই কল করে জানায়, রান্না করো আমরা চারজন আসতেছি। বাইকগুলো আর দেখা যাচ্ছে না। এর মাঝেও কথা হয়। কতটুকু আসলা জিজ্ঞাসা করলে তিনি সাধারণত ম্যাপের স্ক্রিনশট নিয়ে পাঁঠিয়ে দেয় হোয়াটস অ্যাপে। সেদিনও অনেকগুলা ম্যাপ শেয়ার করেছে। লাস্ট কলগুলো সম্ভবত ঘুমিয়ে থাকার জন্য তিনি রিসিভ করতে পারেননি। উনার লাস্ট ম্যাপ শেয়ার টাইম ছিলো ২টা ৩৭ এ। যে জায়গা দেখাচ্ছিলো তাতে ১৮ মিনিট এর ভেতর তিনি মিরপুর ইন করবে দেখাচ্ছিলো। পরে ৪টার দিকে তার ফোন সুইচ অফ পাই। এরপর আমিরের ফোনও সুইচ অফ পাই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *