কুমিল্লায় চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া

কুমিল্লা হোমনা উপজেলার মাথাভাঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনের জাল ভোট দেওয়াকে কেন্দ্র করে দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের মাঝে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। রবিবার (২৮ নভেম্বর) সকাল পৌনে ১০টার দিকে সইফুল্লাকান্দি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্রে এই ঘটনা ঘটে।এসময় পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।এছাড়া দাউদকান্দি উপজেলার সদর উত্তর ইউনিয়নের ভাজরা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এসময় ভোট কেন্দ্রের বাহিরে একাধিক ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায় দুর্বৃত্তরা। পরে অতিরিক্ত পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।

আরও পড়ুন=৩য় ধাপে ইউপি নির্বাচনে মুন্সীগঞ্জ সদর ও টঙ্গীবাড়ি উপজেলায় শান্তিপূর্ণ ভাবে শুরু হয়েছে ভোটগ্রহণ। সকাল থেকে ভোটকেন্দ্রগুলোতে রয়েছে চোখে পড়ার মত ভোটারদের উপস্থিতি।রবিবার (২৮ নভেম্বর) সকাল ৮টা থেকে শুরু হওয়া ভোটগ্রহণ চলবে বিকাল ৪টা পর্যন্ত।প্রতিটি ভোট কেন্দ্রের আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি বজায় রাখতে

এবং সকল প্রকার অপ্রীতিকর ঘটনাসহ যেকোনো সংঘর্ষ এড়াতে বিভিন্ন কেন্দ্রে কেন্দ্রে, অতিরিক্ত পুলিশের পাশাপাশি মোতায়েন রয়েছে বিজিপি, র‌্যাব, আনসারসহ বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা। এছাড়াও দায়িত্ব পালন করছেন নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেটরা।এবার দুই উপজেলার ২১টি ইউনিয়নের সবকয়টিতে ভোটারা ভোটাধিকার প্রয়োগ করছেন

ব্যালটের মাধ্যমে।এতে সরকার দলীয় মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থীরাসহ রয়েছে স্বতন্ত্র ও আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীরাও।এবার দুই উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে বিভিন্ন প্রতীকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ২১৯ জন প্রার্থী, সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে ১২৪ জন ও সাধারণ সদস্য পদে ৬৭৩ জন বিভিন্ন প্রতীকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে ২১টি ইউনিয়নে।সকাল থেকে শুরু হওয়া ২১১টি ভোট কেন্দ্রে ভোট ভোট প্রয়োগ করবেন উপজেলার তিন লাখ ৮৫ হাজার ৭৯৩ জন নারী ও পুরুষ ভোটার।তবে এরই মধ্যে শুরুতেই ২১১

কেন্দ্রের মধ্যে শতাধিক কেন্দ্রকে ঝুঁকিপূর্ণ ও ৫০ টিরও বেশি কেন্দ্রকে অতি ঝুঁকিপূর্ণ বলে ঘোষণা দিয়েছে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা।তাই নির্বাচনের সুষ্ঠু পরিবেশ বজায় রাখতে ভোট কেন্দ্রগুলোতে এবার ছয়জন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ২৯ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ছাড়াও, ছয় প্লাটুন বিজিবি, দুই প্লাটুন র‌্যাব, পুলিশের ৩০টি মোবাইল টিমসহ সাতটি স্টাইকিং ফোর্সসহ একটি রিজার্ভ টিম নজরদারির মাধ্যমে স্বয়ংক্রিয় রয়েছে।নির্বাচনে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষায় এবার আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর বিভিন্ন পর্যায়ের প্রায় পাঁচ হাজার সদস্য দায়িত্ব পালন করছে জানিয়েছেন পুলিশ সুপার।

Check Also

২ সন্তান মিলে মাকে হত্যা, প্রচার করেন আত্মহত্যা

ফুলজান ভানুর (৭০) স্বামী মারা গেছেন ২৮ বছর আগে। ছেলেদের সঙ্গেই থাকতেন। দুই মাস আগে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *