প্রবাসীর সঙ্গে স্কুলছাত্রীর বিয়ের আয়োজন, বন্ধ করলেন ইউএনও

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার হস্তক্ষেপে বাল্যবিয়ের হাত থেকে রক্ষা পেয়েছে নবম শ্রেণির এক স্কুলছাত্রী। শুক্রবার (২৬ নভেম্বর) দুপুরে বিয়ে বাড়িতে বর আসার আগেই ইউএনও ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হালিমা খাতুন উপজেলার ফান্দাউক ইউনিয়নের সওদাগর গ্রামের ওই ছাত্রীর বাড়িতে উপস্থিত হয়ে বিয়ে বন্ধ করে দেন।

ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্রে জানা গেছে, ওই ছাত্রীর সঙ্গে হবিগঞ্জ জেলার দুবাই প্রবাসী এক যুবকের দুপুরে বিয়ে হওয়ার কথা ছিল। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ইউএনও হালিমা খাতুন বিয়ে বাড়িতে উপস্থিত হন। পরে তিনি ওই ছাত্রীর জন্ম নিবন্ধন যাচাই-বাছাই করে দেখতে পান সে অপ্রাপ্ত বয়স্ক। পরে তিনি ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে ছাত্রীর বাবাকে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করেন ও প্রাপ্ত বয়স না হওয়া পর্যন্ত বিয়ে দেবেন না মর্মে মুচলেকা নেন।

আরও পড়ুন= উপমহাদেশের প্রখ্যাত কথাসাহিত্যিক হাসান আজিজুল হকের স্মরণে বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ছোট্ট স্বপ্নের উদ্যোগে বৃহস্পতিবার (২৫ নভেম্বর) সন্ধ্যায় শোক সভার আয়োজন করা হয়। সভায় তার বর্ণাঢ্য জীবন পরিচিতি তুলে ধরা হয়। শোক সভায় উপস্থিত ছিলেন বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য প্রফেসর ড. আশিক মোসাদ্দিক, বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর এবং রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ড. মো হাবিবুল্লাহ।

উপস্থিত ছিলেন হাসান আজিজুল হকের সন্তান রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের বায়োকেমিস্ট্রি অ্যান্ড মলিকুলার বায়োলজি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. ইমতিয়াজ হাসান। এ ছাড়াও ছিলেন ছোট্ট স্বপ্নের আহ্বায়ক ড. সুলতানা রাজিয়া এবং মডারেটর নাসরিন ইসলাম ও নুজহাত তাসনিম আমিন।

বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য বলেন, ‘হাসান আজিজুল হক স্যারের মতো ব্যক্তি ছোট্ট স্বপ্নকে যে প্রত্যক্ষভাবে দিক নির্দেশনা দিতেন সেটা এ পরিবারের জন্য অনেক বড় পাওয়া। তার শৃঙ্খলিত জীবনকে অনুসরণ করলে ছোট্ট স্বপ্নের প্রতিটি সদস্য তার ব্যক্তিজীবনের সকল কঠিন পথ সহজে অতিক্রম করতে পারবে।’

Check Also

দেড় মাস পর দেখা মিলল ডা. মুরাদ হাসানের, যা বললেন

দীর্ঘ দেড় মাস পর সাবেক তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান এমপির দেখা মিলল তার নির্বাচনী …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *