শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার দাবিতে ছাত্র সংগঠনের বিক্ষোভ, পুলিশের বাধা

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়াসহ তিনদফা দাবিতে শিক্ষা মন্ত্রণালয় অভিমুখে বিক্ষোভ মিছিল করেছে প্রগতিশীল কয়েকটি ছাত্র সংগঠন। মিছিলটি শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সামনের সড়কে ব্যারিকেড দিয়ে আটকে দিয়েছে পুলিশ। পুলিশি বাধা পেয়ে সেখানেই তাদের দাবিদাওয়া পেশ করে। আজ বুধবার (১৬ জুন) দুপুর পৌনে ১টার দিকে বিক্ষোভ মিছিলটি বের করেন তারা।

এ সময় বিক্ষোভকারীরা ব্যারিকেড সরিয়ে ফেলার চেষ্টা করলে পুলিশের সঙ্গে হাতাহাতি হয়। পরে সেখানেই অবস্থান নিয়ে সমাবেশ করেন তারা। এর আগে আজ সকাল পৌনে ১২টার দিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি থেকে মিছিলটি শুরু হয়ে রাজু ভাস্কর্য, শিক্ষা ভবন, প্রেসক্লাব হয়ে সচিবালয়ের দিকে যায়। সচিবালয় লিংক রোডে পৌঁছালে পুলিশ তাদের বাধা দেয়। পরবর্তীতে সেখানে দাঁড়িয়েই তারা তাদের দাবি পেশ করেন। এ সময় জোটের নেতা কর্মীরা ‘শিক্ষা ব্যবসা, এক সাথে চলে না’; ‘হল-ক্যাম্পাস খুলে দাও,

নাইলে গদি ছেড়ে দাও’; ‘অচল হল সচল করো, শিক্ষা জীবন রক্ষা করো’; ‘বাধা আসবে যেখানে, লড়াই হবে সেখানে’; ‘লড়াই লড়াই লড়াই চাই, লড়াই করে বাঁচতে চাই’ ইত্যাদি স্লোগান দেয়। জোটের ৪ দফা দাবিগুলো হলো- রোডম্যাপ ঘোষণা করে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়া, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজের ওপর আরোপিত ১৫ শতাংশ কর প্রত্যাহার; সব শিক্ষার্থীকে বিনামূল্যে টিকা দেওয়া; করোনাকালে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের বেতন-ফি মওকুফ করা।

সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্টের সভাপতি আল কাদেরী জয় বলেন, ‘আমাদের দাবি দ্রুত সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দিতে হবে এবং সব শিক্ষার্থীদের টিকা দিতে হবে।’ তিনি আরও বলেন, ‘কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের আয়ের ওপর ১৫ শতাংশ কর বাতিল করতে হবে। এবং করোনার সময়ে শিক্ষার্থীদের বেতন-ফি মওকুফ করতে হবে। কর্মসূচিতে বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন, বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশন, সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্ট, বিপ্লবী ছাত্র মৈত্রী ও গণতান্ত্রিক ছাত্র কাউন্সিলের অর্ধশতাধিক নেতাকর্মী অংশ নেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *